Home / সাধারণ বিজ্ঞান / লিনাক্স নেভিগেশন

লিনাক্স নেভিগেশন

 

নেভিগেশন কি? নেভিগেশন এর ভাল বাংলা হচ্ছে একস্থান হতে অন্য স্থানে যাওয়া। লিনাক্স নেভিগেশনে আমরা শিখব কি করে লিনাক্সে এক ডিরেক্টরি থেকে অন্য ডিরেক্টরিতে যাওয়া যায়, ফিরে আসা যায় ও বিভিন্ন ডিরিক্টরির অধীনে থাকা ফাইলসূহের তালিকা কি করে তৈরী করা যায়। এজন্য আমরা আজকে বেসিক তিনটি কমান্ড শিখব। কমান্ডগুলো হচ্ছে pwd, cd, ls. তো আজকের লেশন শুরু করার আগে কমান্ড সম্পর্কে একটু জেনে নেয়া উচিত। এক একটি কমান্ড হচ্ছে এক একটি প্রোগ্রাম। প্রতিটি কমান্ড একটি নিদিষ্ট কাজ করে। প্রায় প্রতিটি কমান্ডের সাথে থাকে এক বা একাধিক সুইচ বা অপসন। এই সুইচ বা অপসন কমান্ডকে বলে দেয় তার কাজটি ঠিক কিভাবে করতে হবে বা ব্যাবহারকারীর কাছে কিভাবে উপস্থাপন করতে হবে। এখন এতটুকু জানলেই হবে। তো চলুন শুরু করা যাক লিনাক্স নেভিগেশন।

 pwd (present working directory = pwd)

=========================

Syntax: pwd

লিনাক্সে যখন আপনি কমান্ড নিয়ে কাজ করবেন তখন তা করতে হবে ভারচুয়াল টারমিনাল বা টারমিনাল ইমুলেটরে। তখন কমান্ড লাইন ইন্টারফেস চাইলেই আপনাকে কোন গ্রাফিকাল ছবির মাধ্যমে ডিরেক্টরির স্ট্রাকচার দেখাতে পারবে না। সে লিখে দেখাবে। ধরে নিন, রুট হচ্ছে সবচেয়ে উপরের ডিরেক্টরি। আপনি যখন যে ডিরেক্টরিতে থাকবেন সেটি হচ্ছে আপনার কার্যকর ডিরেক্টরি বা ওর্য়াকিং ডিরেক্টরি। আপনি একবারে শুধু মাত্র একটি ওর্য়াকিং ডিরেক্টরিতেই থাকতে পারবেন। pwd হচ্ছে সেই কমান্ড যা দ্বারা আপনি আপনার ওর্য়াকিং ডিরেক্টরি দেখতে পারবেন বা আপনার নিজের অবস্থান দেখতে পারবেন। টারমিনাল ওপেন করলেই আপনি আপনার হোম ডিরেক্টরিতে থাকবেন। সেক্ষেত্রে আপনি যদি pwd কমান্ডটি টাইপ করে এন্টার দেন তবে রুট থেকে আপনার ওর্য়াকিং ডিরেক্টরি পর্যন্ত path (পাথ্) দেখতে পাবেন। কমান্ড লাইনটি দেখতে হবে এরকম:

user_name@computer_name user_name ~ $ pwd

/home/user_name

এখানে user_name এর জাযগায় আপনার বা ব্যাহারকারীর নাম এবং computer_name এর জায়গায় আপনার কম্পিউটারের নাম হবে। ব্যাস, আপনি লিনাক্সের একটি কমান্ডের ব্যাবহার শিখে গেলেন। এখন আপনি অন্য ডিরেক্টরিতে যেতে চাচ্ছেন। কি করে যাবেন? চলুন শিখে ফেলা যাক দ্বিতীয় কমান্ড।

cd (change directory = cd)

=================

Syntax: cd <path_name>

আশা করছি আমি কিছু বলার আগেই আপনি বুঝে ফেলেছেন এই কমান্ড দিয়ে ডিরেক্টরি পরির্বতন করা হয়। আমি জানি আপনি যথেষ্ট শার্প। আর জন্যই আপনি খুব দ্রুত লিনাক্স শিখে ফেলছেন। যাইহোক, এই কমান্ড এর সাথে আপনাকে অবশ্যই একটি অপশন দিতে হবে আর তা হচ্ছে পাথ্ নেম (path name). এবার তবে পাথ নেম সম্পর্কে বলে নিই।

Path অর্থ রাস্তা। পাথ্ নেম অর্থ রাস্তার নাম। অর্থ্যাৎ, যে রাস্তা দিয়ে আপনি নির্দিষ্ট ডিরেক্টরিতে পৌছাবেন সে রাস্তার নামই হচ্ছে পাথ্ নেম। আরো পরিষ্কার করে বলি। ধরুন রুট (/) এর অধীনে একটি ফোল্ডার আছে usr নামে, আবার usr এর অধীনে একটি ফোল্ডার আছে bin নামে, bin এর অধীনে আর একটি ফোল্ডার আছে tmp নামে। তাহলে রুট (/) থেকে tmp পর্যন্ত আসার রাস্তা হচ্ছে /usr/bin/tmp. এই রাস্তাটিই হচ্ছে পাথ। সম্পূর্ণটিকে একসাথে বলে পাথ্ নেম। উপরের পাথ নেমটিতে প্রথম “/” টি হচ্ছে রুট। পরের / গুলো বুঝাচ্ছে আগের ফোল্ডারটির অধীনে পরেরটি। অর্থ্যাত, রুট এর অধীনে usr, usr এর অধীনে bin, bin এর অধীনে tmp.

আচ্ছা, আপনি কি টারমিনালে কমান্ড লিখা আরম্ভ করেছেন। দাড়ান, দাড়ান, আমার লেকচার এখনো শেষ হয় নাই। বুঝেন না, ফ্রি লেকচার দিচ্ছি। এত সহজে কি শেষ হয়। শুনুন, পাথ নেম আপনি দু’ভাবে লিখতে পারেন।

  • আবসুলেট পাথ নেম বা প্রকৃত পাথ নেম এবং

  • রিলেটিভ পাথ নেম বা সাপেক্ষ পাথ নেম।

আবসুলেট পাথ নেম বা প্রকৃত পাথ নেম

এই পাথ নেম সবসময় আরম্ভ হয় রুট (/) থেকে এবং শেষ হয় যে ডিরেক্টরিতে বা ফোল্ডারে যেতে চান সে ফোল্ডারে। যেমন: /usr/x11r6/bin এই পাথ আপনাকে usr এর অধীনে যে x11r6, এবং x11r6 এর অধীনে যে bin সে ডিরেক্টরিতে পৌছে দিবে।

cd /usr/x11r6/bin

রিলেটিভ পাথ নেম বা সাপেক্ষ পাথ নেম

এই পাথ নেম সবসময় আরম্ভ হয় আপনার ওয়ার্কিং ডিরেক্টরি থেকে এবং শেষ হয় যে ডিরেক্টরিতে বা ফোল্ডারে যেতে চান সে ফোল্ডারে বা ডিরেক্টরিতে। যেমন: আপনার ওর্য়াকিং ডিরেক্টরি যদি হয় x11r6 এবং আপনি bin এ পৌছুতে চান তবে লিখতে হবে

cd /bin অথবা

cd ./bin

. চিহ্ন দ্বারা ওর্য়াকিং ডিরেক্টরি এবং .. চিহ্ন দ্বারা ওর্য়াকিং ডিরেক্টরির পূর্ববর্তী ডিরেক্টরি বা ফোল্ডারকে বুঝায়। “.” এই চিহ্নকে পিরিয়ড বলে। একটি পিরিয়ড (.) মানে ওর্য়াকিং

ফোল্ডার এবং ডাবল পিরিয়ড মানে ওর্য়াকিং ফোল্ডারের পেরেন্ট ফোল্ডার বা ওর্য়াকিং ফোল্ডারের পূর্ববর্তী ফোল্ডারকে বুঝায়। তবে বর্তমানে এই পিরিযড দিয়ে কেউ প্রেজেন্ট ডিরেক্টরি বা ওয়ার্কিং ডিরেক্টরি বুঝায় না। সরাসরি পাথ লিখে দেয়।

এই ছিল cd কমান্ডের আদ্যপান্ত। এবার যান তো একটু ঘুরে আসুন বিভিন্ন ডিরেক্টরি থেকে। কি সমস্যায় পড়েছেন? কোন ডিরেক্টরির ভেতর কি আছে দেখতে পাচ্ছেন না? এখন আপনি যে ডিরেক্টরিতে আছেন সে ডিরেক্টরির সমস্ত ফাইল ও ফোল্ডার এর লিস্ট দেখতে চাইলে কি করবেন? আছে, তারও উপায় আছে। এখন আমরা শিখব নতুন আর একটি কমান্ড।

ls (list all files and folder of present working directory)

=================================

Syntax: ls <option>

আপনি যখন টারমিনালে ls লিখবেন তখন ls প্রোগ্রামটি লিনাক্সকে বলবে ওয়ার্কিং ডিরেক্টরির সমস্ত ফোল্ডার ও ফাইল এর লিস্ট তৈরী করতে এবং তা দেখাতে। এই কমান্ডটির সাথে আপনি বেশ কিছু সুইচ বা অপশন ব্যাবহার করতে পারবেন। কোন ডিরেক্টরিতে না যেয়েও আপনি সেখানের ফাইলের লিস্ট পেতে পারেন। সেক্ষেত্রে আপনাকে অপশন হিসেবে পাথ নেম ব্যাবহার করতে হবে। কমান্ডগুলো দেখতে অনেকটা এরকম হবে:

  1. ls (list all files & folders of pwd in multiple column)

  2. ls -l (list all files & folders of pwd in single column)

  3. ls /bin (list all files & folders of bin folder which is under root)

কমান্ডগুলো টারমিনালে টাইপ করে আউটপুট দেখুন ব্যাপারগুলো আরো পরিষ্কার হবে। কমান্ডগুলো বারবার প্রাকটিস করুন। মনে রাখার চেষ্ঠা করুন। লিনাক্সে কাজ করতে এই কমান্ডগুলো সবসময়ই আপনার কাজে লাগবে। পরবর্তী লেসনে আমরা আরো কয়েকটি কমান্ড দেখব। আপাতত এ পর্যন্তই।

About আবু ফয়সাল আহমেদ

Check Also

জোসেফ প্রিস্টলি : অক্সিজেন আবিষ্কারক

{mosimage}১৭৩৩ সালে ব্রিটেনের গরিব তাঁতির ঘরে জন্মগ্রহণ করেন জোসেফ প্রিস্টলি। তিন বছর বয়সে মাকে ও …

ফেসবুক কমেন্ট


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।